strong keyword competitor bangla seo

কিওয়ার্ড রিসার্সে কম্পিটিটর অনেক স্ট্রং হলে কি করনীয়?

Last Updated on

ইন্টারনেটে কোন কিছুই ধ্রুব নয়। সব কিছু চেঞ্জ হয় প্রতিনিয়ত এবং খুবই দ্রুত! সুতরাং আজকে আপনার কাছে যেই সাইটটা বেশ বড় কম্পিটিটর মনে হচ্ছে; কিছুদিনের মধ্যেই আপনি তার কাছাকাছি পৌঁছে যেতে পারবেন আপনার কাজ দিয়ে। আরও কিছুদিন পর হয়তো তাকে টপকাতেও পারবেন। সেটাও হবে আপনার কাজ দাড়া। 

বাংলাদেশে মোবাইল কোম্পানি সিটিসেল এসেছে সবার আগে। একচেটিয়া ব্যবসা করেছে অনেক বছর। কেউ কি কখনো ঘুণাক্ষরেও ভেবেছিলো যে একসময় এই সিটিসেলের টিকিটাও খুঁজে পাওয়া যাবে না কোন এক সময়? না কেউ ভাবেনি।

কিন্তু রুঢ় বাস্তবতা তো দেখতেই পাচ্ছেন।

এখন কথা হচ্ছে, অন্য মোবাইল কোম্পানিগুলো কিভাবে সিটিসেলকে টপকালো? তারা কি পুরো সিটিসেলের সাথে ব্যবসায়িক যুদ্ধে নেমেছিলো?

না।

তারা অনেক ছোট ছোট চেঞ্জ এনেছে। সিটিসেল যেসব ব্যাপারে মাথা ঘামায় নাই; অন্য কোম্পানিগুলো সেগুলাতে ফোকাস করেছে। যেমন –

১। যে কোন ফোনে সিম ব্যবহারের সুবিধা (CDMA to GSM)। 
২। অপেক্ষাকৃত কম কল রেট। 
৩। ইচ্ছেমতো মোবাইল সেট ব্যবহার করার সুবিধা। 
৪। স্মার্ট এবং আধুনিক চিন্তা করা, অন্তত “আমি এখন আধুনিক” এমন ভাব ধরা।

সুতরাং বুঝতেই পারছেনঃ বেটার এসইও স্ট্রাটেজি, বেটার রিসার্চ, বেটার স্ট্রাকচার দিয়ে আপনি আপনার কম্পিটিটরকে আউটর‍্যাঙ্ক করতে পারবেন। আর ইন্টারনেট বেইজড বিজনেসে তো এইটা আরও সহজ। 

আমরা যেটা করবো, বর্তমানে যারা টপে আছে; তাদের সাথে সরাসরি যুদ্ধ করতে যাবো না। তারা যেগুলোতে কেয়ার করবে না, আমরা সেগুলো কেয়ার করার চেষ্টা করবো।

গুগলকে আগে বুঝাবো যে, আমরা এই ইন্ডাস্ট্রিতে এক্সপার্ট।

আগেই র‍্যাঙ্ক নয়, আগে অথরীটি বিল্ড করবো।

আগেই কিওয়ার্ড নয়, আগে ট্রাস্ট বিল্ড করবো।

কীওয়ার্ড রিসার্চ এ আপনার স্ট্রং কম্পেটিটরকে কিভাবে পিছনে ফেলবেন তাই এখন বলছি;

  • লং টেইল কীওয়ার্ড খুঁজে বের করা কম্পেটিটর যেটা রাঙ্ক করেছে তার কাছাকাছি।
  • কম্পেটিটর কীওয়ার্ড, পেজ বা ব্যাকলিংকগুলো এনালাইসিস করা।
  • কম্পেটিটর থেকে ভালো কনটেন্ট দিতে হবে।
  • কনটেন্ট অপ্টিমিজি করে নিন।
  • কনটেন্ট প্রোমোটে করবেন।
  • আপনার কম্পেটিটর ব্যাকলিংককে রিভার্স ইঞ্জিনিয়ার করেন
  • আপনি টুলস ব্যবহার করতে পারেন এক্ষেত্রে। Ahrefs হচ্ছে বেস্ট সমাধান 
    Ahrefs এর সাইট এক্সপ্লোরার এ যাবেন তারপর আপনার কম্পিটিটর সাইট ইউআরএল দিবেন
  • অর্গানিক কীওয়ার্ড এ ক্লিক করে আপনার টপ ১০ দেখে নেন .
  • টপ ১০ কীওয়ার্ড রাঙ্ক দেখে নেন।
  • আপনার কীওয়ার্ড দিয়ে গুগল ট্রেন্ড এর ভিসিটরদের সার্চ করার প্রবণতা দেখে
  • নিবেন। গুগল ট্রেন্ড প্রতি মাস এর ডাটা আলাদা আলাদা দেখায় তাই খুব সহজেই
  • আপনার কীওয়ার্ড সম্পর্কে আপনার কীওয়ার্ড সম্পর্কে একটা পরিষ্কার ধারণা পাবেন।
  • গুগল সাজেস্ট সার্চ থেকে আপনি কীওয়ার্ড নিতে পারেন খুব সহজেই।

একবার যখন গুগল আমাদের ট্রাস্ট করা শুরু করবে; তখন দেখবেন অনেক ভালো ভালো কিওয়ার্ডেও আমরা হারিয়ে দিয়েছি বর্তমান কম্পেটিটরদের।

নোটঃ একটা কিওয়ার্ড কতোটা কম্পেটিটিভ, সেটা আসলে আপেক্ষিক একটা ব্যাপার। আমার কাছে একটা কিওয়ার্ডে ৫০ টা ব্যাক্লিঙ্ক আছে এমন সাইটকে অনেক স্ট্রং মনে হয়। কারো কাছে ৫০০ টা ব্যাক্লিঙ্কসও কোন ব্যাপার না। সুতরাং সামগ্রিক বিষয়টা আসলে নির্ভর করে আপনার লক্ষ্য, পরিকল্পনা এবং তার টোটাল বাস্তবায়নের উপর।

 

About the author

নাসির উদ্দিন শামীম

নাসির উদ্দিন শামীম এসইও নিয়ে কাজ করছেন ২০১০ থেকে।ইতোমধ্যে, DevsTeam, LateNightBirds, NShamimPRO এবং আরো অনেক ইন্টারনেট বেসড কোম্পানি ফর্ম করেছেন। NShamim.Com ব্লগে ইন্টারনেট মার্কেটিং নিয়ে বাংলা ভিডিও টিউটোরিয়াল দিয়ে হাজারো বাংলা ভাষাভাষীদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেছেন। যারা ভিডিও দেখতে পারছেন না, অথবা পর্যাপ্ত ইন্টারনেট না পাওয়ার কারনে ইউটিউব থেকে ভিডিও ডাউনলোড করতে পারছেন না, তাদের জন্যেই মূলত এখানে বাংলায় লিখছেন। সাথেই থাকুন।

View all posts

2 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *