আমি আমার পার্সোনাল টেস্ট থেকে যেটা বুজেছি –
 
এই ফলিং টা আসলে রিসেন্ট কোন ঘটনা না। সেই যে 10Beasts ধরা খাইলো (পেনাল্টি), তখন থেকেই ফলিংটা শুরু। 10Beasts টা আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকায় অন্যসব সাইটের ব্যাপারটা ধরতে পারিনাই আমরা  
 
বড় বড় সাইটের হিস্ট্রি দেখলে দেখবেন অনেকেই ফল করেছে তখন থেকেই। কেউ উঠতে পেরেছে, কেউ পারে নাই, এইটা অন্য হিসাব।
 
এখন সমস্যার কথা বললে –
 
 
আমরা ইন-ডেপথ কন্টেন্ট এবং লং ফর্ম কন্টেন্ট গুলিয়ে ফেলি। আপনি যদি সার্পের টপ সাইট গুলা (বিভিন্ন নিসের) এনালাইসিস করেন, এই ব্যাপারটা ধরতে পারবেন।
 
সমাধান হচ্ছে, লং ফর্ম না, ইন-ডেপথ কন্টেন্ট লিখুন (এই জিনিসটা কি সেটা বললে অনেক সময় লাগবে। গুগল করলে পাবেন সব। ) । লং ফর্মের কন্টেন্টে আপনার মেইন টপিকটা ভাসা ভাসা থাকে…এবং অনেক হাবি জাবি কিওয়ার্ড র‍্যাঙ্ক করে যেগুলার জন্যে আসলে আপনার সাইটটা অথবা ওই পারটিকুলার পেইজটা টপিক্যালি রিচ না। গুগল কিন্তু একটা সময় ঠিকই এইগুলা ধরে ফেলে এবং সময়ে সময়ে র‍্যাঙ্ক হারিয়ে ফেলেন।
 

২। এক্সপার্ট কিওয়ার্ড ডেনসিটি!

 
এইটা সরাসরি কিওয়ার্ড ডেনসিটি না। আপনার টার্গেট কিওয়ার্ড গুগল পড়তে পারে, এটা ঠিক আছে। কিন্তু আপনার টার্গেট কিওয়ার্ডকে ফোকাস করে ওই নিসে এক্সপার্ট কেউ আর্টিকেল লিখলে কোন কোন ওয়ার্ডগুলো ব্যবহার করতো? সেগুলার ডেনসিটি কেমন? এইখানেই আমরা ধরা খেয়ে যাই! গুগল ইজিলি ধরে ফেলে এই ব্যাটা এফিলিয়েট করতে আইসে…মানুষকে হেল্প করতে না। আপনি SEO রিলেটেড আর্টিকেল SEO না জানা কিন্তু খুব ভালো রাইটারকে লিখে দিয়েন, পার্থক্যটা বুঝতে পারবেন।  
 
করনীয় কি? – নিজে ওই নিশ নিয়ে পড়াশুনা করা। নিজেকেই ওই নিসের একজন এক্সপার্ট বানানো।
 

৩। ওভার অপটিমাইজেশন।

 
ভাই, আগে যা যা করতেন তার ৪ ভাগের এক ভাগ করেন এখন (কিছু কিছু সেক্টর – যেমন এঙ্কর, কিওয়ার্ড প্লেসমেন্ট) । গুগল হেইটস এসইও। কিওয়ার্ড, এঙ্কর কোন কিছু একটু বেশি ভালো (?) করে অপ্টিমাইজ করেছেন তো, Minhaz ভাই এর মতো পস্তাইতে হবে।  
 
করনীয় – গুগলকে জানানোর দরকার নাই আপনি এসইও পারেন। একজন বিজনেসম্যান তার প্রথম ওয়েবসাইট চালু করলে সে কি কি করবে প্রথমে? আপনিও সেই ভাবে চিন্তা করে সাইটের এসইও করুন। সাইটের প্রত্যেকটা পেইজ থেকে উইকিপিডিয়াকে লিঙ্ক দেয়া বন্ধ করুন। আর কতো? পৃথিবীতে উইকিপিডিয়া ছাড়াও তো আরও অনেক সাইট আছে।  

সাইট এর ডিসাইন পরিবর্তন বা মাইগ্রেশন :

আপনি যদি সাইট এর ডিসাইন বড় চেঞ্জ করেন বা সাইট মাইগ্রেশন করান তাহলে বিপদে পরে যাবেন। কারণ এই মাইগ্রেশন ও ডিসাইন বদল করলে অনেক সময় সাইট এর স্পিড কমে যায় বা অনেক ক্ষেত্রে সাইট এর ক্ষতি হয়। সাইট এর স্পিড গুগল র্যাংকিং ফ্যাক্টর এর মধ্যে অন্যতম। তাই অবশ্যই এই ইস্যুকে প্রাধান্য দিতে হবে।

লিংক হারালে :

অনেক সময় আপনার দামি লিংকটা হারিয়ে যায় বা ইনবাউন্ড লিংকটা ব্রোকেন হতে পারে এমন কিছু হলেও আপনার ট্রাফিক কমতে পারে। আপনি যদি এমন কিসু বুজতে পারেন তাহলে দ্রুত আপনি Ahrefs দিয়ে একবার চেক করে নিতে পারেন। যেভাবে বুজবেন আপনার সাইট এর লিংক হারাচ্ছে;
গুরুত্বপূর্ণ সাইট লিংক হারানো
কোনো নির্দিষ্ট পেজ বা কিছু পেজ থেকে লিংক হারানো

গুগল এলগোরিদম পরিবর্তন করলে :

গুগল তার এলগোরিদম মাঝে মধ্যে পরিবর্তন আনে তখন দেখা যায় অনেক সাইট তার পসিশন হারিয়ে ফেলে বা কীওয়ার্ড রাঙ্ক ড্রপ করে তাই এমন কিসু হলে অবশ্যই আপনাকে সতর্ক হতে হবে। যে বিষয় গুলো খেয়াল রাখবেন;

কেন গুগল পেনাল্টি দিলো
কেন গুগল চেঞ্জ আনলো
এই পেনাল্টির জন্য কি কি করতে হবে এবং কি করে ভালো সাইট হিসেবে গুগল এ থাকা যায়।