এসইও/ব্লগিং/অ্যাফিলিয়েট মাইন্ডসেট (5 Things To Keep In Mind)

SEO এবং ব্লগিং/এফিলিয়েট ইন্ডাস্ট্রিটা অনেক ভোলাটাইল (সহজ বাংলা হচ্ছে পরিবর্তনশীল বা অস্থির – গুগল ট্রান্সলেটের মতে

🙂
  • Save
)।

এইজন্যেই এই সেক্টরে অনেকে হুজুগেই চলে আসেন, ক্লিক করলে বাজিমাত, আর ক্লিক না করলে হতাশায় আকণ্ঠ ডুবিয়ে বিষাদগার করেন! তাই মাইন্ডসেটটা খুব গুরুত্বপুর্ণ।

আমার অনেক অনেক বছরের অভিজ্ঞতার আলোকে কিছু পরামর্শ আপনাদের জন্যে দিচ্ছি। কথাগুলো মনে প্রাণে বিশ্বাস করে, আড়মোড়া ভেঙ্গে নতুন করে কাজ করা শুরু করে দিন আবার।

🙂
  • Save

ইটস নেভার ঠু লেইট টু স্টার্ট এগেইন!

  • 👉🏾
    • Save
    কন্টেন্ট, লিঙ্ক, স্পিড বা সাইটের ডিজাইন ভালো না হলে লাইভ করবেন না – এমন ধারণা থেকে সড়ে আসুন। সাইটের কাজগুলো একটা চলমান প্রক্রিয়া। প্রথমদিনেই পারফেক্ট হতে হবে এমন কোন কথা নেই। ধীরে ধীরে সাইটের সব ডিপার্টমেন্ট ইম্প্রুভ করুন। গুগল সময় নেয় একটা পেইজ র‍্যাঙ্ক করতে, আপনিও সময় নিন। তাড়াহুড়ার কিছু নেই।
  • 👉🏾
    • Save
    সাইট চালাচ্ছেন অনেকদিন। বছরখানেক হয়ে গিয়েছে কিন্তু কোন ইম্প্রুভমেন্ট নাই, কোন আর্নিং নেই। এসব ক্ষেত্রে হতাশ হয়ে কাজ স্টপ না করে, জাস্ট কিওয়ার্ডগুলো অডিট করুন। কন্টেন্টগুলো অডিট করুন। ৯০% সময়ে আমি দেখেছি, এই দুইটাই একটা সাইটের ব্যার্থতার পিছনের প্রধান কালপ্রিট। যা হওয়ার হয়েছে, আবার নতুন করে কিওয়ার্ড রিসার্চ করুন; তারপর সেই কিওয়ার্ডগুলো দিয়ে কম্পেটিটরদের চেয়ে অনেক ভালোভাবে রিসার্চ করে কন্টেন্ট দিন। আগের কন্টেন্ট গুলো থাকুক। নতুন কিওয়ার্ড দিয়ে নতুনভাবে শুরু করুন। থেমে যাওয়া সহজ কিন্তু হাল না ছেড়ে আবার ঘুড়ে দাঁড়ানো একটু কঠিন। এই কঠিন কাজটাই আপনি করে ফেলুন না!
  • 👉🏾
    • Save
    সাইট পেনাল্টি খেলে বা একটা গুগল আপডেটের পর ট্রাফিক হুট করেই লস করলে বা সেল/অ্যাড আর্নিং কমে গেলে প্যানিকড হয়ে যাবেন না। প্যানিক হলে দেখবেন নরমাল কাজগুলোও করতে পারছেন না। একদম কিছু চেঞ্জ না করেই সাইট পরবর্তি আপডেটে রিকভার করেছে এমন অনেক সাইট দেখেছি। সুতরাং হতাশ হবেন না – একটা সাইট ডাউন হওয়া মানে আপনি মারা যাচ্ছেন বা আপনি পথে বসে যাচ্ছেন এমনতো আর না! সাইটের ভুল ত্রুটিগুলো কিভাবে ফিক্স করা যায় সেটা নিয়ে ব্যস্ত থাকুন।
  • 👉🏾
    • Save
    সাইটের ইনকাম মোটামোটি স্ট্যাবল একটা পর্যায়ে গেলে ৮০ – ২০ মেথড ফলো করে নতুন সাইট বানান। মানে, যেই সাইট ভালো আর্নিং দিচ্ছে, সেই সাইটে আপনার সারা দিনের ৮০% সময় (এবং ইনভেস্টমেন্ট) ব্যয় করবেন আর বাকি ২০% দিবেন নতুন সাইটে। নতুন সাইট মেচিউর হতে থাকুক। মাল্টিপল সাইট থাকলে পেনাল্টিকে আর ভয় পাবেন না – কারণ একটা সাময়িক ধাক্কা খেলেও আরেকটাতে বেশী ইফর্ট দিতে পারবেন। দুশ্চিন্তা করার টাইমও কম পাবেন।
  • 👉🏾
    • Save
    যখনি সময় পান, সাইটের প্রথমদিককার পুরনো কন্টেন্টগুলো আপডেট করবেন নতুন নতুন ডাটা বা স্ট্যাটস দিয়ে। গুগল করে দেখে নিবেন কম্পেটিটররা এক্সট্রা কি কি করেছে যেটা আপনার কন্টেন্ট এ মিসিং – সেই মিসিং জিনিষগুলোই ইনপুট দিবেন আপনার পুরনো কন্টেন্ট। এইটা একদম ম্যাজিকের মতো কাজ করে।
    🙂
    • Save

আজকে এই পর্যন্তই।

ভালো থাকুন।

সুস্থ থাকুন।

আপনার ইমেইলে বাংলায় ইন্টারনেট মার্কেটিং এবং এসইও রিলেটেড লেটেস্ট খবর ও আপডেট পেতে চান? সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap