কিভাবে লিংকডইন মার্কেটিং করবেন। পূর্ণাঙ্গ গাইডলাইন।

আপনি কি আপনাকে/আপনার ব্র্যান্ডকে ৬৬০ মিলিয়ন প্রফেশনালদের সাথে কানেক্ট করতে চান ?  
নিচে ১০ টি টিপস দেওয়া হলো যার মাধ্যমে আপনি লিংকডইন এর মাধ্যমে লিড জেনারেশন করতে পারেন, ব্র্যান্ড সচেতনতা বাড়াতে পারেন এবং লিংকডইন এর সাথে কৌশলগত পার্টনারশীপ প্রতিষ্ঠিত করতে পারেন।  

  • Save

টিপস-০১: আপনার লিংকডইন প্রোফাইল আপডেট রাখুন

প্রথম ইম্প্রেশন হচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ এবং আপনার প্রোফাইল যদি ভালো ইম্প্রেশন দেয় তবে সুবিধা পাবেন। তাই আপনার প্রোফাইল আপডেট রাখুন যাতে করে আপনার কন্টাক্ট রেট বাড়ানো যায়। যারাই লিংকডইন এ ব্যবসা করতে চায় তাদের সবার প্রোফাইল আপডেট রাখাটা জরুরি। কারণ অডিয়েন্স আপনার প্রোফাইল দেখেই আপনার ব্র্যাড সম্পর্কে জেনে নিবে তারপর আপনাকে নক দিবে। 
# আপনার প্রোফাইল ১০০% করার চেষ্টা করুন ও প্রতিনিয়ত আপডেট করুন। 
# নতুন স্কিল, এচিভমেন্ট এবং আপনার কাজের স্যাম্পল অ্যাড করুন।  
#আপনার এক্সপেরিয়েন্স অনুযায়ী পার্সোনালিটি ও ইন্ট্রোডাকশন অ্যাড করুন। 

টিপস-০২: কাযকরী লিংকডইন পেজ তৈরী করুন

একটি কাযকরী ল্যান্ডিং পেজ তৈরী করুন। যেটা আপনার অর্গানিজশন বা নিজের প্রোফাইল হবে লিংকডইন  এ। আপনার পেজ আপনার কাস্টমারদের আপনার ব্র্যান্ড সম্পর্কে জানতে সাহায্য করবে সাথে একই ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে কাজ করছে এমন কেউ আপনার প্রোফাইল দেখে আপনার সম্পর্কে জানতে পারবে। 

টিপস-০৩: আপনার অডিয়েন্স ও লক্ষ্য নিধারণ করুন

যখনি আপনার অডিয়েন্স অথবা লিডস জেনারেট করতে যাবেন তখনি আপনাকে টার্গেট নির্ধারণ করতে হবে। 
যখন আপনি জানবেন আপনি কি করবেন তখন আপনি সহজেই আপনার অডিয়েন্সদের বুঝতে পারবেন। আপনি যদি সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আপনার প্রোডাক্টিভিটিকে বিক্রি করতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই সোশ্যাল মিডিয়া মেম্বারদের মধ্যে ব্র্যান্ড সচেতনতা বাড়াতে হবে ।     

টিপস-০৪: পেজ সার্চ অপ্টিমাইজ করুন

একটি ভালো কোম্পানি তার পেজকে অপ্টিমাইজ করবে যাতে ভিসিটর তাদের অফার দেখতে পারে। পেজ সার্চ অপ্টিমাইজ করতে যে বিষয় গুলা খেয়াল রাখতে হবে; 

#ইনসার্ট কীওয়ার্ড: ভিসিটর যেই সার্চ টার্ম দিয়ে সার্চ করে প্রোডাক্ট/সার্ভিস দেখার জন্য ঐ কীওয়ার্ড আপনি আপনার About ট্যাব ওভারভিউতে অ্যাড করুন। যেখান থেকে আপনার ভিসিটর দেখতে পারবে আপনি কি সার্ভিস/ প্রোডাক্ট দিচ্ছেন। 

#লিংক: লিংক হচ্ছে র্যাংকিং বুস্ট করার বেশ ভালো একটি মাধ্যম। আপনার পেজকে ওয়েবসাইট এর সাথে লিংক করুন এবং নিশ্চিত করুন আপনি রিলেভেন্ট কনটেন্ট পোস্ট ও শেয়ার করছেন ও আপনার প্রোফাইল আপডেটড। আপনি যত বেশি কনটেন্ট শেয়ার করবেন আপনার পোস্ট এনগেজমেন্ট তত বেশি হবে ও আপনার পেজ সার্চ রেজাল্টস এর তত উপরে দেখাবে।

টিপস-০৫: আপনার পেজ ফলোয়ার বৃদ্ধি করুন

ফলোয়ার বৃদ্ধি করতে হলে আপনাকে এনগেজমেন্ট বাড়াতে হবে। আপনি প্রোফাইল আপডেট বা পোস্ট দিলেই তা আপনার ফলোয়ার এর লিংকডইন ফিড এ শো করে। আপনার যদি ভালো পরিমান ফলোয়ার থাকে তাহলে আপনার আপডেট এর সাথে সাথে আরো রিলেভেন্ট অডিয়েন্স এর কাছে পৌঁছাতে পারবেন। ফলোয়ার যেভাবে বাড়াতে পারেন তা নিচে দেয়া হলো; 
#আপনার ব্লগ সাইট এ “Follow” বাটন ব্যবহার করুন   
#আপনার প্রোফাইল এ কানেকশন আছে তাদের “invite” দিতে পারেন। 
#আপনার কোম্পানিকে প্রমোট করুন ইমেইল, নিউসলেটার এবং ব্লগ পোস্ট এর মাধ্যমে।

টিপস-০৬: আপনার কোম্পানি পেজ এ এনগেজিং পোস্ট পাবলিশ করুন 

আপনার কোম্পানি পেজ এর জন্য এনগেজিং কনটেন্ট পাবলিশ করুন। আপনার টার্গেট অডিয়েন্সকে লক্ষ্য করে পোস্ট দিন। যদিও লিংকডইন এ  কনটেন্ট খুব একটা ভালো রেজাল্ট দেয় না। তবে কনটেন্ট থেকে আপনি অডিয়েন্স বাড়িয়ে আপনার প্রোডাক্ট/সার্ভিস বিক্রি বাড়াতে পারেন। 

আপনি আপনার এনগেজমেন্ট বাড়ানোর জন্য বিসনেস আইডিয়া/চিন্তাধারা আপনার লিংকডইন পেজ এ পোস্ট করতে পারেন। 

স্বাভাবিকভাবে,  আপনার ফিড এ নিজের লিখা কনটেন্ট পাবলিশ করবেন কিন্তু যে পোস্ট গুলা বেশ এনগেজিং ঐ পোস্ট গুলাও আপনি শেয়ার করলে এনগেজমেন্ট বাড়াতে সক্ষম হবেন। 

টিপস-০৭: এনগেজমেন্ট বাড়ানোর জন্য রিচ মিডিয়া ব্যবহার করুন

ভিডিও কনটেন্ট ট্রাফিক এনগেজমেন্ট বহুল অংশে বাড়িয়ে দেয়। তাই রিচ মিডিয়া ব্যবহার এর মাধ্যমে আপনি কিভাবে ট্রাফিক এনগেজমেন্ট বাড়াতে পারেন তা নিচে দেয়া হলো; 
#আপনার পোস্ট এ ৩/৪ টা ইমেজ থাকলে ভালো পারফর্ম করে। 
# ১/২ মিনিট এর ভিডিও গুলা যেগুলা কয়েক সেকেন্ড এর মধ্যে আপনার মনোযোগ নিতে পারে এবং সাব-টাইটেল গুলা ভিডিও মধ্যে দিন।     
# লাইভ ভিডিও ২৪ গুন্ বেশি কমেন্ট পরে রেগুলার ভিডিও গুলো থেকে। 
# পিডিএফ অথবা পাওয়ার পয়েন্ট আপনার ব্র্যান্ডকে ইউনিক করতে পারে। 

টিপস-০৮  আপনার বেস্ট কনটেন্টকে ফোকাস করা

স্পন্সরড কনটেন্ট ব্যবহার করে আপনার কনটেন্টকে অডিয়েন্স ফিড এ বুস্ট করুন। 
আপনার প্রোফাইল আপডেট এর মাধ্যমে আপনার ফলোয়ারদের আরো বেশি আকর্ষণ বাড়ান। 

#সঠিক অডিয়েন্স এর কাছে পৌঁছানোর জন্য তাদের টার্গেট করুন 
#আপনার স্পন্সরড কনটেন্ট ভিন্নতা আনার মাধ্যমে ব্যবহার করুন। 
#আপনার অ্যাড দেয়া থেকে যত গুলা লিড আসছে ঐ সকল লিড গুলা সাগৰখন করুন। 

টিপস-০৯: লিংকডইন অ্যাড ক্যাম্পাইন তৈরী করুন 

  • Save


আপনার মার্কেটিং লক্ষ্য পূরণে লিংকডইন অ্যাড ম্যানেজার অপসন এ যান। আপনি নিজেই লিংকডইন অ্যাড ক্রিয়েট করতে পারেন। যেমনঃ স্পন্সরড কনটেন্ট, মেসেজ অ্যাডস, ডাইনামিক অ্যাডস অথবা টেক্সট এডস এর মাধ্যমে। লিংকডইন এমন একটি প্লাটফর্ম যেখানে আপনি সব ধরেনর অ্যাডস পাবেন।        

আপনি এডস এর জন্য বাজেট সেট করুন, লক্ষ্য সিলেক্ট করুন এবং ক্যাম্পাইন এর সময় নির্ধারণ করুন। তাছাড়া লিংকডইন আপনাকে বিভিন্ন ফিচারস দিবে আপনার এডস ডিসাইন করার জন্য। 

টিপস-১০: এনালিটিক্স দেখে পরবর্তী পদক্ষেপ নিন

#এনালিটিক্স দেখে আপনি বের করতে পারবেন কোন কনটেন্টটা বেশি আকর্ষণীয় ছিল আপনার অডিয়েন্স এর জন্য। আপনি লিংকডইন এ বিভিন্ন মাধ্যম পাবেন যার মাধ্যমে অডিয়েন্স এর ব্যবহার ও পারফরমেন্স সম্পর্কে জানতে পারবেন। 

#এনালিটিক্স মনিটরের মাধ্যমে আপনি আপনার লিংকডইন পেজ পারফরমেন্স অপ্টিমাইজ করতে পারেন। তাছাড়া আপনার এডস ক্যাম্পাইন পারফরমেন্স লিংকডইন এডস ম্যানেজার এর মাধ্যমে উন্নতি ঘটাতে পারেন।     

আরো টিপস জানতে হলে আপনি এই ভিডিওটি দেখে ফেলুন:

লিংকডইন মার্কেটিং নিয়ে কোনো প্রশ্ন থাকলে আপনি কমেন্ট বক্সে করতে পারেন আমরা আপনার প্রশ্নের উত্তর দিয়ে সাহায্য করবো।

আপনার ইমেইলে বাংলায় ইন্টারনেট মার্কেটিং এবং এসইও রিলেটেড লেটেস্ট খবর ও আপডেট পেতে চান? সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।

1 thought on “কিভাবে লিংকডইন মার্কেটিং করবেন। পূর্ণাঙ্গ গাইডলাইন।”

  1. This is amazing tips for LinkedIn marketing for beginner. I will follow this method and I will share my experience. Thanks for sharing this type valuable content for us.

    Reply

Leave a Comment

3 Shares
Share via
Copy link