ডি-ইনডেক্স হবার পর আপনার করণীয় বা সমাধান কি ?

আপনার পেজ বা পোস্ট অনেক কারণে ডি-ইনডেক্স হতে পারে। যেই যেই কারণে আপনার পেজ বা পোস্ট ডি-ইনডেক্স ইস্যু তৈরী হয় যেইগুলা নিয়ে আমি পূর্বেই (টুকটাক_টিপস:৮৫)পোস্ট দিয়েছি। তাও আপনাদের সুবিধার্থে আবার একটু রিপিট করে সমাধানে যাবো; 

ডি-ইনডেক্স করার কারণ

১) ডুপ্লিকেট কনটেন্ট এর কারণে।
২) কনটেন্ট যদি খারাপ হয় মানে কনটেন্ট এর ইনফরমেশন কম থাকলে বা ইনকমপ্লিট থাকলে।
৩) যখন ওয়েব পৃষ্ঠা বা ইউআরএল ক্যানোনিকালাইজড করা হয়, এটি ঘটে যখন গুগল স্বয়ংক্রিয়ভাবে পেজটি অন্যটির অনুরূপ দেখে এবং এটিকে অন্য জায়গায় নির্দেশ করে। এই প্রক্রিয়াটি গুগল সার্চ কনসোল দিয়ে যাচাই করা যেতে পারে।
৪) যখন পেজটির কোনও ট্র্যাফিক ও ইন্টারনাল লিঙ্ক থাকে না, এই ক্ষেত্রে গুগল এটিকে গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করে না।
৫) যখন ইউআরএল এ 404 এরর দেখা দেয়।
৬) যখন ইউআরএল সার্ভারে 500 দেখায়।
৭) যখন ইউআরএল 301 বা 302 কোড দিয়ে কনটেন্ট পুন রিডাইরেক্ট করে। আগের ইউআরএলটা গুগল তখন ডি-ইনডেক্স করে দেয়।
৮) যখন URL এর noindex করা থাকে।
৯) যখন ইউআরএল গুগল সার্চ কনসোল থেকে রিমুভ করে দেয়া হয়।
১০) আপনার ডোমেইন যদি পেনাল্টি খায় বা নেয়ার সময় পেনাল্টি খাওয়া থাকে যেটা হয়তো আপনি চেক করে নেন নাই। এর জন্যও আপনার পোস্ট/পেজ ডি-ইনডেক্স হতে পারে।

সমাধান কিভাবে করবেন ?

১) ডুপ্লিকেট কনটেন্ট

আপনার সাইট এ যদি এমন কনটেন্ট থাকে যেটা অন্য কোনো সাইট এর সাথে মিলে যায় তবে সেই কনটেন্ট গুলা copyscape (পেইড) দিয়ে চেক করে ফিক্স করে ফেলুন অথবা আপনি যদি ফ্রি টুলস ব্যবহার করতে চান তবে; SEO Small Tools ব্যবহার করতে পারেন। 

২) কনটেন্ট ইস্যু

আপনার কনটেন্ট যদি ইনফরমেশন কম থাকলে বা ইনকমপ্লিট থাকলে ডি-ইনডেক্স ইস্যু হতে পারে।  এর জন্য আপনাকে কনটেন্টটা ম্যানুয়ালি পড়ে দেখতে হবে। অনেক সময় দেখা যায় কনটেন্ট এর টপিক অনুযায়ী লিখা থাকে না বা কনটেন্ট এ  সিকোয়েন্স সেক্ষেত্রে ঠিক থাকে না যার ফলে সার্চ ইঞ্জিন এইরকম কনটেন্ট ইউসারদের কাছে সার্ভ করতে বিরত থাকে। 

৩) ক্যানোনিক্যাল ইস্যু

আমরা আমাদের ওয়েবসাইট ৪ টি ভার্শনের মধ্যে যেকোনো একটিতে ভেরিফাই করে থাকি যেমন  https non www/http non www/https www/ http www এখন আপনি যদি সার্চ কনসোল এ ভেরিফাই করা ভার্শনের সাথে প্রেফার্ড ভার্সন মিল না থাকে সেক্ষেত্রে আপনার ক্যানোনিক্যাল ইস্যু হতে পারে। 
আবার আপনার যদি SSL এক্সপায়ার হলেও কিন্তু ক্যানোনিক্যাল ইস্যু হতে পারে অথবা SSL এক্সপাইরের কথা হয়তো আপনার মনে নাই এবং আপনি পোস্ট করে দিলেন সেইক্ষেত্রে আপনার ওয়েবসাইট এ ক্যানোনিক্যাল  ইস্যু হতে পারে। সেইক্ষেত্রে আপনি SSL একটিভ করুন ও ক্যানোনিক্যাল হওয়া পোস্ট গুলা ৩০১ রিডাইরেক্ট করে দিন। 
আরো একটা কারণে এই সমস্যা হতে পারে, সেটি হচ্ছে ক্যানোনিক্যাল ট্যাগ ডুপ্লিকেট অর্থাৎ ২টি ক্যানোনিক্যাল একটি ইউআরএল এ হতে পারে।  এমন হলে আপনি এসইও প্লাগিনটি ডিএক্টিভ করে cache রিমুভ করেন তারপর সোর্স কোড এ যেয়ে দেখেন ক্যানোনিক্যাল একটি দেখাচ্ছে কিনা? যদি একটি দেখায় তবে আপনি বুঝে নিবেন এর জন্য এসইও প্লাগিন দায়ী।   আপনি যদি আপনার এসইও প্লাগিনটি রাখতে চান তবে আপনি থিম সেটিংস এ যেয়ে ক্যানোনিক্যাল ট্যাগ অপশনটি ডিসএবল করে দেন।         

৪) সাইট স্ট্রাকচার ও ট্রাফিক

আপনার পোস্ট গুলাতে যদি কোনো ট্রাফিক না পায় বা ইন্টারনাল লিংক করা না থাকে তখন গুগল মনে করে এই পেজ বা পোস্টটি গুরুত্বহীন। সেক্ষেত্রে আপনাকে প্রতিটা পোস্টে ইন্টারনাল লিংক করা ও অন্যান্য অন-পেজের কাজ করা। 

৫) ইউআরএল এ 404 এরর

আপনার পেজ বা পোস্ট যদি ৪০৪ হয়ে থাকে তাহলে দ্রুত তা ৩০১ রিডাইরেক্ট করে নিন। তা নাহলে আপনার পোস্ট বা পেজকে সার্চ ইঞ্জিন ডি-ইনডেক্স করে দিবে। 

৬) ইউআরএল সার্ভারে 500 এরর

আপনার ওয়েবসাইট এ যদি দীর্ঘক্ষণ ৫০০ সার্ভার এরর দেখায় তবে আপনার সাইট এ ভিসিটর ভিসিট করতে পারবেন না যার ফলে সার্চ ইঞ্জিন আপনার ওয়েবসাইট এর কনটেন্ট গুলা রাঙ্ক ডাউন করে দিতে থাকে। এমন সমস্যা হলে দ্রুত হোস্টিং প্রোভাইডারকে নক দিয়ে সমস্যাটি দেখার জন্য বলবেন। 

৭) ইউআরএল 301 বা 302 কোড দিয়ে কনটেন্ট পুন রিডাইরেক্ট  

আপনি যখন কোনো পোস্ট বা পেজ ৩০১ বা ৩০২ রি-ডাইরেক্ট করেন সেইক্ষেত্রে আপনার পূর্বের পোস্ট ডি-ইনডেক্স হবে। 

৮) URL এর noindex করা  

আপনার কোনো পোস্ট বা পেজ noindex করে রাখলে সেইটার ক্ষেত্রে ডি-ইনডেক্স ইস্যু হবে। সেইক্ষেত্রে আপনাকে পোস্টটি noindex ট্যাগটি উঠিয়ে দিতে হবে। 

৯) ইউআরএল গুগল সার্চ কনসোল থেকে রিমুভ করে দেয়া

কোনো কারণে যদি কোনো ইউআরএল সার্চ কনসোল থেকে রিমুভ করে দেয়া হয় তবে ওই ইউআরএল সার্চ ইঞ্জিন থেকে  ডি-ইনডেক্স হয়ে যাবে। 

১০) ডোমেইন ইস্যু 

ডোমেইন নেয়ার আগে যদি যথাযথভাবে চেক না করা হয়ে থাকে এবং সেই ডোমেইন যদি পেনাল্টি পেয়ে থাকে  সেইক্ষেত্রে আপনার কোনো পোস্ট সার্চ ইঞ্জিন ইনডেক্স করবে না। অথবা আপনার ডোমেইন কোনো কারণে পেনাল্টি খেলে আপনার সব পোস্ট সার্চ ইঞ্জিন একে একে ডি-ইনডেক্স করে দিবে। 
এর সমাধান হচ্ছে সার্চ কনসোলের ম্যানুয়াল অ্যাকশন এ যেয়ে মেসেজ চেক করে যদি এমন কিছু পাওয়া যায় বা যদি ডি-ইনডেক্স ইস্যু হয় তবে Site Audit করে  সম্ভাব্য কারণ বের করে সমস্যা ফিক্স করা।  

আপনার ইমেইলে বাংলায় ইন্টারনেট মার্কেটিং এবং এসইও রিলেটেড লেটেস্ট খবর ও আপডেট পেতে চান? সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।

Leave a Comment

Share via
Copy link