Last Updated on

গুগল গত পরশু দিন (  ২৮ মে, ২০২০) – তাদের ওয়েবমাস্টার ব্লগে এই পেইজ এক্সপেরিয়েন্স নিয়ে একটা আর্টিকেল পাবলিশ করেছে। এবং তারা এটাও ম্যানশন করেছে যে – অদূর ভবিষ্যতে এই পেইজ এক্সপেরিয়েন্স বিষয়টাকে তারা একটা নতুন একটা র‍্যাঙ্কিং সিগনাল হিসেবে বিবেচনা করবে। নতুন এই র‍্যাঙ্কিং ফ্যাক্টরটি গুগল ক্রোমের Core Web Vitals এর ডাটার সমন্বয়ে কাজ করবে। 

চলুন দেখে নেই এই নতুন র‍্যাঙ্কিং ফ্যাক্টরটা আসলে কি এবং কিভাবে এবং কখন থেকে কাজ করবে – 

১। কোর ওয়েব ভাইটাল মেট্রিকটা ওয়েবসাইটের স্পিড, রেস্পন্সিভনেস এর উপর ডিপেন্ডেন্ট। মানে, একদম ক্রোম এর লাইটহাউজের মতোই ডাটা। আমার মনে হয়, গুগল লাইটহাউজ ফিচারটা বাদ দিয়ে এই ওয়েব ভাইটালকে ফোকাস করবে কোন এক সময় থেকে। এই নতুন পেইজ এক্সপেরিয়েন্স র‍্যাঙ্কিং ফ্যাক্টরটা ওয়েব ভাইটাল মেট্রিক্স এর একটা ডিফারেন্ট নেইম (আমার মতে)।

২।  সামনের বছর এই ফ্যাক্টরটা কাজ করবে, তবে তার আগে গুগল আমাদের নোটিশ দিবে যে কোর এলগোরিদমে এই ফ্যাক্টরটা যোগ হচ্ছে। 

৩। আপনার সাইটের কোর ওয়েব ভাইটাল এর মেট্রিক্স ভালো হলে আপনার সাইটের AMP ভার্সনটাকে গুগল আর প্রিফার নাও করতে পারে। 

আমাদের কি করনীয়? 

নিচের এই জিনিশগুলো ১০০% নিশ্চিত করতে হবে। 

১। ভালো হোস্টিং।

২। লাইটওয়েট এবং কন্টেন্ট ফোকাসড থিম। 

৩। অপটিমাইজড ইমেজ এবং মিডিয়া (ইন্ডাইরেক্টলি সাইটের স্পিড)। 

মোট কথা সাইটের ফন্ট যাতে সুন্দর এবং রিডেবল হয়,  ২.৫ সেকন্ডের মধ্যেই যাতে সাইট লোড হয়, ইউজাররা যেখানে ক্লিক করতে চায় (মোবাইল থেকে স্পেশালি) সেখানে ক্লিক করতে যাতে প্রব্লেম না হয় – মানে একটা বাটনে ক্লিক করতে গিয়ে যাতে অন্য বাটনে ভুলবসত ক্লিক না পরে যায় – এই ছোটখাট বিষয়গুলো এখন খুবই গুরুত্ব দিয়ে দেখতে হবে। 

কারণ গুগল ক্রম ব্রাউজার থেকে ডাটা নিয়ে ইজিলি বুঝে ফেলবে আপনার সাইট ব্রাউজ করতে ভিজিটরদের এক্সাক্টলি কোথায় কোথায় সমস্যা হচ্ছে। 

আজ এই পর্যন্তই!

ভালো থাকবেন সবাই।