Last Updated on

আসসালামু আলাইকুম!

আপওয়ার্ক নিয়ে আগের কন্টেন্ট থেকে বেশ কয়েকজনের মতামত হচ্ছে কভার লেটার নিয়ে। আমি আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে কিছু শেয়ার করবো। তবে এই বিষয়টাতে এক্সপার্ট ভাইরা আরো বেশ ভাল তথ্য এবং গাইড করতে পারবে। আমি শুধু কিছু পরীক্ষিত বিষয়ে কথা বলবো।

প্রথম পয়েন্টঃ আপনাকে জব ডিসক্রিপশন পুরোপুরি পড়তেই হবে। প্রথম ২ লাইন পড়েই যদি দেখেন হ্যাঁ এই কাজ আপনি পাড়েন, আর সেই অনুযায়ী কভার লেটার লিখে বিড করেন, তাহলে ধরে নিন কাজ আপনি পাবেন না বা ক্লাইন্ট আপনাকে নক করবে না।

দেখবেন ক্লাইন্ট জব ডিসক্রিপশনের মধ্যে একটা ওয়ার্ড দিয়ে দিবে আর বলবে যে, কভার লেটারের শুরুর শব্দটা যেন এটা হয়। অথচ আপনি সব না পড়েই লেটার লেখা শুরু করে দিছেন। নিশ্চিত ভাবে আপনার বিডটাই বৃথা যাবে।

দ্বিতীয় পয়েন্টঃ কভার লেটারে ক্লাইন্টকে স্যার-ম্যাডাম বলে সম্বোধন না করাই ভাল। ইউরোপ বা আমেরিকানরা স্যার শব্দটা ‍খুব বেশি পছন্দ করে না। তাহলে আপনি কি কি করতে পারেন।

  • ক্লাইন্টকে তার নাম ধরে বলতে পারেন। যেমন Hey Jack, Hi Adam, Hello Alex.. এবার আপনি তার নাম জানবেন কিভাবে? জবে তো ক্লাইন্টের নাম দেখা যায় না। ছবিতে দেখুনঃ

ক্লাইন্টের রিভিউ অপশনে যান, জবের নিচেই দেখতে পাবেন। সেখানে ক্লাইন্ট টু ফ্রিলান্সার ফিডব্যাকে গেলে দেখবেন অনেক ফ্রিলান্সার ক্লাইন্টকে ফিডব্যাক দেয়ার সময় নাম উল্লেখ করেছে, একবারে নাম নিয়ে সন্দেহ থাকলে আরো কিছু ফিডব্যাক দেখেন। তাহলে নামটা নিশ্চিত হতে পারবেন।

কেন এই কাজ করবেন?

যখন ক্লাইন্ট দেখবে যে আপনি তাকে তার নাম ধরেই ডাকছেন, তখন সে বুঝবে আপনি নতুন না এবং কিছু টেকনিক জানেন বলেই তার নাম বের করতে পারছেন। এটা আপনার জন্য সুবিধাজনক হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

  • আবার আপনি ক্লাইন্টের লোকেশন অনুযায়ী ‍গুগল থেকে টাইমজোন বের করে তাকে তার সময় অনুযায়ী Good Morning Adam, Good Evening Alex….ইত্যাদি দিয়ে শুরু করতে পারেন। তাহলে অন্তত ক্লাইন্ট আপনাকে স্মার্ট ভাববে।
  • Hi, Hello…. শেষ করেই আপনি একটা প্রশ্ন দিয়ে শুরু করতে পারেন। বিষয়টা একটু ক্লিয়ার করি। ধরুন সে গত গুগল আপডেটে ট্রাফিক হারিয়েছে, কিন্তু সে এটা উল্লেখ করেনি জবে, শুধু বলেছে- যে সে তার ট্রাফিক ড্রপে চিন্তিত এবং বাড়ানো দরকার।আপনি কভার লেটারের শুরুতেই বললেন, যে তোমার ট্রাফিক কবে থেকে ড্রপ করেছে? জুনের কোর আপডেটে হারিয়েছে নাকি তারও আগে? যদি কোর আপডেটে হারায় তাহলে তোমার এই এই পয়েন্ট গুলোতে কাজ করতে হবে। [যেগুলো আপডেটে বলা আছে সেগুলো উল্লেখ করলেন] যেহেতু আপনি নিউবি, সে ভাববে এই লোক আপডেট সংক্রান্ত সকল বিষয়ে জ্ঞান রাখে। এই কারণে আপনি একটা আলাদা ভ্যলু পেতে পারেন। অথবা তার ব্যাকলিংক লাগবে, বাট সে তেমন কিছু উল্লেখ করেনি তার লিংকের চাহিদার ব্যাপারে- অর্থাৎ কোন ধরনের সাইট থেকে সে লিংক চায়। আপনি তখন ভাল একটা সাইট দ্রুত বের করেই ahrefs এর ডাটাটা তাকে দিয়ে প্রশ্ন করলেন যে, এই ধরনের সাইট থেকে লিংক নিলে হবে কিনা?

এর ফলে, যেটা হবে তা হচ্ছেঃ পরে সে যেটা নিয়ে কথা বলবে, সেই পয়েন্ট আপনি আগেই উল্লেখ করে দিয়েছেন। ক্লাইন্ট আপনাকে একজন স্মার্ট হিসেবে গ্রাহ্য করবে।

নোটঃ

– ক্লাইন্টের সাথে কখনো নিজেকে ছোট প্রকাশ করবেন না। আপনার প্রোফাইল নতুন হলেও আপনি এক্সপার্ট এর মত আচরণ করবেনে। আমাদের মধ্যে অনেকেই কভার লেটারে ক্লাইন্টকে এমন ভাবে অনুরোধ করে, যেন ক্লাইন্ট তার দায়িত্ব নিতেই পোস্ট দিয়েছে।

অনেকে এভাবেই করে থাকেন ”Badly I need this job, Please consider me, Let me get the chance to build up my career”

– এগুলো করা থেকে বিরত থাকুন, ক্লাইন্টকে স্মার্টলি হ্যান্ডেল করুন। আশা করি, স্মার্ট ক্লাইন্ট আপনার স্মার্ট আচরণের সন্মান করবেন।

– জবে যা যা চেয়েছে, তার ৩ গুন কাজ করে দিবেন এমন আশ্বাস দেয়ার দরকার নাই। তাহলে ক্লাইন্ট ভেবে নিবে যে আপনার হাতে কাজ নেই, আপনি বেকার।

ছোট একটা পরামর্শঃ আপনার প্রোফাইলের যে টাইটেল অর্থাৎ আপনি কোন কাজে দক্ষ সেটা বুঝানোর যে টাইটেলটা ব্যবহার করা হয়, এটা একটু বিস্তারিত রিসার্চ করে তারপর নির্ধারণ করুন

এখানে ২ জন এক্সপার্টের এ্যাকাউন্ট থেকে স্ক্রিনশর্ট নেয়া হয়েছে!

এটাও রিসার্চের বিষয়। আপনি এখানে টাইটেল এর কি-ওয়ার্ড রিসার্চ করে নিন। এক্সপার্টদের প্রোফাইল দেখুন। গুগলে সার্চ করুন Top Rated Designer/ SEO Expert in Upwork. তারপর তাদের প্রোফাইলে গিয়ে তাদের টাইটেল দেখে আপনি আপনার জন্য একটা টাইটেল তৈরি করুন, এখানে এই টাইটেলের কি-ওয়ার্ডের উপর ভিত্তি করে আপনার প্রোফাইলের র‌্যাংক নির্ধারিত হয়।

ক্লাইন্টরা মাঝে মাঝে ”Desing Expert, SEO Expert” এই জাতীয় কি-ওয়ার্ডে সার্চ করে তার জবের জন্য ইনভাইট পাঠায়। যাদের প্রোফাইল সম্পুর্ণ, প্রায় সময়ই নতুন প্রোফাইল হওয়া সত্বেও তাদের আইডি উপরে চলে আসে।

সবশেষে, এলোমেলো ভাবে বিড করা থেকে বিরত থাকুন। ৩ দিনে একটা বিড করুন, তাও সেটা জবটা পাওয়ার উপযুক্ত ভাবেই করুন। যে কাজটা আপনার সাথে পুরোপুরি যায়, সেই জবেই বিড করুন।

যাক- অনেক কথা বলে ফেলছি। আজ এতটুকুই। আশা করি উপকারে আসবে ইনশা আল্লাহ্। আপনাদের মতামত জানান কমেন্ট করে।

ধন্যবাদ। আল্লাহ্ সবাইকে সুস্থ এবং সুন্দর রাখুন!