আসালামু আলাইকুম । সবাই কেমন আছেন , আশা করছি নিশ্চয়ই ভাল আছেন । আজকে আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করব আপওয়ার্ক কি এবং আপওয়ার্কে কোন কোন সেকশনে কাজ করার অপশন রয়েছে সেই বিষয়ে । চলুন তাহলে আমাদের মুল পোস্টে যাওয়া যাক ।

 

আপওয়ার্ক কি ?

আপওয়ার্ক একটি গ্লোবাল ফ্র্রিল্যাংসিং মার্কেটপ্লেস যেখানে ফ্রীলান্সারদের ক্লাইন্ট আউটসোর্চ করে তাদের প্রজেক্ট পেমেন্ট দিয়ে করিয়ে নেয়ার জন্য ।আপওয়ার্কে ১২ মিলিয়ন রেজিস্টার ফ্রীলান্সার এবং ৫ মিলিয়ন রেজিস্টার ক্লাইন্টস রয়েছে । বছরে আনুমানিক ৩ মিলিয়ন জবের পোস্ট দেয়া হয় মার্কেটপ্লেসটিতে । কাজ গুলোর টোটাল মূল্য $ ১ বিলিয়ন USD । এই বৈশিষ্ট গুলোর কারণে  আপওয়ার্ককে বিশ্বের সব থেকে বড় ফ্রীলান্সার মার্কেটপ্লেস ।

 

আপওয়ার্কে কোন কোন সেকশনে কাজ করার অপশন রয়েছে ?

আপওয়ার্কে কোন কোন সেকশনে কাজ করার অপশন রয়েছে

আপনি এখন ভাবছেন এতো এতো পুরোনো ফ্রীলান্সারদের সাথে কম্পিটিশন করে নিজে কাজ পাওয়ার জন্য কোন সেকশনে নিজের স্কিল বিল্ডআপ  করবেন যেন সেই স্কিল কাজে লাগিয়ে এমন বড় মার্কেটপ্লেস পুরোনোদের সাথে কম্পিটিশন করে কাজ পেতে পারেন ?

আসলে যেকোনো সেকশনেই কাজ করার সুযোগ রয়েছে নতুনদের জন্যও কিন্তু নিজেকে সেইভাবে রেডি করতে হবে স্কিল বিল্ড করতে হবে প্রপারলি যে সেকশনে কাজ করতে আপনি ইচ্ছুক সে সেকশনে কাজ করে জন্য এবং অবশ্যই ক্লাইন্ট এট্ট্রাক্ট হবে এমন করে প্রোফাইল সাজাইতে হবে ও একটি প্রটফোলিও ওয়েবসাইটও প্রয়োজন । যদি আপনার প্রোফাইল আপনার টার্গেট করা কাজ সেকশনের সাথে যায় এমন করে প্রপারলি সাজাইতে পারেন এবং জব বিড  করার  সময় জব অফারটি মনোযোগ দিয়ে পরে কভার লেটার লিখেন তাহলে কাজ পাওয়ার সম্ভবনা রয়েছে নতুনদের জন্যও সব সেকশনে । কিভাবে প্রোফাইল সাজাবেন প্রপারলি সেইটা নিয়ে আলোচনা করে পুর্বে আমি আপনাদের জানাবো এমন ১০টি স্কিল সম্পর্কে যেগুলোর জন্য ফ্রীলান্সার এখন বেশি হাইয়ের করা হচ্ছে ২৬ জানোয়ারি ২০১৭ এর লেটেস্ট সার্ভে অনুজাই ।

স্কিল গুলো হচ্ছে-

  1. Natural language processing
  2. Swift
  3. Tableau
  4. Amazon Marketplace Web Services (MWS)
  5. Stripe
  6. Instagram marketing
  7. MySQL programming
  8. Unbounce
  9. Social media management
  10. AngularJS

 

নতুন ফ্রীলান্সার হিসেবে আপনার উচিত হবে যেসব সেকশনে জবের সম্ভবনা রয়েছে বেশি সেইসব সেকশনে নিজের স্কিল বিল্ড করা ।

আপওয়ার্কে আপনার ফ্রীলান্সার প্রোফাইল নিচের দেয়া স্টেপ গুলো ফলো করে সাজিয়া নিন-

 

১ . আপনার সোশ্যাল প্রোফাইল অ্যাড করে দিন

আপওয়ার্কে যতগুলো সোশ্যাল একাউন্ট অ্যাড করার অপশন রয়েছে সে গুলোতে আপনার সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্ট ক্রিয়েট করে সেইগুলো প্রোফাইল গুলো আপনার আপওয়ার্ক প্রোফাইলে অ্যাড করে দিন । আর আপনার সোশ্যাল মিডিয়া সাইট গুলোর প্রোফাইল প্রফেশনালি সাজিয়া রাখবেন , এতে আপওয়ার্ক আপনার প্রফেশন টা ভালো ভাবে বুঝবে ।

 

২. প্রোফাইল ফটো

আপনার রিয়াল একটি সিম্পেল এবং ফ্রিন্ডলী ও প্রফেশনাল ফটো আপলোড করে দিন । পিকচার কোয়ালিটি যেন ভালো হয় সেই দিকে খেয়াল রাখবেন ।

 

৩. অ্যাড টাইটেল

আপনার টাইটেলটি ছোট হবে কিন্তু অল্প ওয়ার্ডেই ক্লাইন্ট যেন বুঝে যায় আপনি কি সার্ভিস অফার করছেন । টাইটেল লেখার সময় স্পেসিফিক হন এবং কিওয়ার্ড use করার চেষ্টা করুন আপনার কাজ রিলেটেড । যেমন ধরুন- আপনি এসইও সার্ভিস অফার করেন তাহলে আপনার টাইটেলে এসইও সার্ভিস ওয়ার্ড রাখতে হবে ।

 

৪. অ্যাড ওভারভিউ

টাইটেলের পর আসে ওভারভিউ । এই সেকশনে আপনি আপনার ক্লাইন্টকে আপনার স্কিলের বেপারে একটু ভালো ভাবে বুঝানোর জন্য সুযোগ পাবেন । কারণ এটি টাইটেলের মতো ছোট জায়গা নয় নিজের বিষয়ে লেখার জন্য আর এইখানেও আপনার সার্ভিস কিওয়ার্ড use করতে ভুলবেন না ।

 

৫. অ্যাড স্কিল

মিনিমাম ৫ টি এবং ম্যাক্সিমাম ১ ০ টি স্কিল অ্যাড করবেন ।

 

৬. ইংলিশ ল্যাংগুয়েজ স্কিল ক্লিয়ার করুন

আপওয়ার্কে কোন কোন সেকশনে কাজ করার অপশন রয়েছে

আপনার ইংলিশ স্কিল সেটি অবশ্যই সেট করে দেবেন ।

 

৭. আপনার স্কিল লেভেল সিলেক্ট করুন

স্কিল লেভেল ৩ পর্যন্ত রয়েছে – ১. এন্ট্রি লেভেল , ২. ইন্টারমেডিয়েট লেভেল , ৩. এক্সপার্ট লেভেল  ।

আপওয়ার্কে কোন কোন সেকশনে কাজ করার অপশন রয়েছে

এইখানে নিজেকে অনেস্ট রাখার চেষ্টা করবেন । আপনার যে স্কিল লেভেল অরিজিনালি সেইটাই use করবেন ।

 

৮. অ্যাড এমপ্লয়মেন্ট হিস্ট্রি

আপনার পুবের যদি কোথাও কাজ করার এক্সপেরিয়েন্স থাকে তাহলে সেটি ডিটেল্সে অ্যাড করে দিন ।

 

৯. অ্যাড এডুকেশনাল ব্যাকগ্রউন্ড

আপনার এডুকেশনাল ব্যাকগ্রউন্ড ক্লাইন্টকে আরেকটু বেশি ইমপ্রেস করতে হেল্প করবে তাই ডিগ্রী এবং ইনস্টিটিউটের নাম সহ অ্যাড করে দিন ।

 

১০. প্রটফোলিও

এই সেকশনে আপনি আপনার পড়বেন কাজ করা প্রজেক্ট গুলো অ্যাড করতে পারেন । যেমন ধরুন- আপনার পর্বের ডিজাইন করা একটি ওয়েবসাইট রয়েছে , সেটি এইখানে অ্যাড করে দিতে পারেন ।

 

১১. আওয়ারলি রেট 

আপনার স্কিল এর সাথে যায় এমন বা আপনার লেভেলের স্কিল অন্য ফ্রীল্যান্সরা কেমন রেট দিয়েছে দেখে আপনিও সেটি সেট করতে পারেন আওয়ারলি রেট ।

 

আপনার যেকোন প্রশ্ন, সমস্যা, অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে পারেন আমাদের সাথে ২ ভাবে মেইল ও কমেন্ট এর মাধ্যমে । কমেন্ট এর মাধ্যমে হেল্প চাইলে নিচে কমেন্ট করুন । মেইল এর মাধ্যমে যোগাযোগ করতে চাইলে আমাদের কনটাক্ট আস পেজে যোগাযোগ করতে পারেন ।আজ এই পর্যন্তই । আগামী কোন আর্টিকেলে আপনাদের সামনে হাজির হব নতুন কোন এসইও ও সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এর  নতুন কোন বিষয় নিয়ে । আল্লাহ হাফেজ ।


Leave a Reply