top websites for adsense bangla

১৩ টি ওয়েবসাইট যেগুলো আপনার ব্লগ শুরু করার আগেই দেখা উচিত!

Last Updated on

আমার বিভিন্ন ভিডিওতে এবং ব্লগের কমেন্ট সেকশনে অনেকেই প্রশ্ন করে যে – About . Com কোথায় হারিয়ে গেলো? সেই প্রশ্নের উত্তর দিবো নিচে, তার সাথে সাথে পোস্টের শেষের দিকে কিছু গুরুত্বপূর্ণ স্ট্যাটস এবং পরামর্শ আছে; সেগুলো অবশ্যই দেখে নিবেন।

আপনি যদি about.com এ ঢুকতে চান, তাহলে আপনাকে নিয়ে যাবে DotDash নামক একটা সাইটে। DotDash হলো USA বেইজড একটা পাবলিশিং কোম্পানি যারা গত দুই যুগ ধরে একটা বিশাল নেটওয়ার্ক বানিয়েছে অনেক বড় বড় সাইটের সমন্বয়ে। 

হেলথ, টেক, বিউটি, পারসোনাল ফিনান্স, মোটিভেশন – কোন ইন্ডাস্ট্রিতে নেই এরা? 

আপনি যদি তাদের সাইটগুলো এনালাইসিস করেন; তাহলে একটা বিষয় বুঝতে পারবেন, আর সেটা হচ্ছে কন্টেন্টের ভ্যালু। পাশাপাশি কোন ধরনের নিসে কি টাইপের মানুষজন বেশি ইন্টারেস্টেড এবং আপনি যদি ওই নিসে ( ইন্ডাস্ট্রিতে) কাজ করতে চান তাহলে কাদেরকে টার্গেট করা উচিত সেটাও ঠিক করতে পারবেন। 

চলুন, এক নজরে দেখে আসি তাদের ওয়েবসাইটগুলোঃ

১। Thoughtco.com – একটি এডুকেশন ফোকাসড ব্লগ। এই সাইটের মান্থলি ভিজিটর ১৩ মিলিওন (ইউনিক)। ৫১% ভিজিটরই হচ্ছে কলেজ গ্রাজুয়েট এবং ৪৬% ভিজিটর হচ্ছে এমন যারা ১৯৮০ সালের পরে জন্মগ্রহণ করেছে। সাইটটি মূলত গুগল অ্যাডসেন্স দিয়ে মানিটাইজ করা। 

২। https://www.thespruce.com – কিভাবে সুন্দর করে আপনার বাড়ি বানাবেন এবং সেটার ডেকোরেশন এবং ইম্প্রোভমেন্ট বিষয়ক ব্লগ। ওদের কিছু চাইল্ড ব্লগ ও আছে যেমন স্প্রুস পেটস, স্প্রুস ইট, স্প্রুস ক্রাফটস। মান্থলি ভিজিটর ২৮ মিলিওন। যার মধ্যে ৩৭% ভিজিটরদেরই বাচ্চা-কাচ্চা আছে এবং সেই সাথে একটা বাড়ির মালিক। গুগল অ্যাডসেন্স এবং আমাজন দিয়ে মানিটাইজ করা। 

৩। https://www.verywell.com/ – একটা পুরোদুস্তর হেলথ ব্লগ। পাশাপাশি ফিটনেস, ফ্যামিলি মেটার এবং মোটিভেশন নিয়ে চাইল্ড ব্লগও আছে। মাসিক ভিজিটর ৩৯ মিলিওন+। মূলত গুগল এডসেন্স দিয়ে মানিটাইজ করা। আমাজনও আছে। 

৪। https://www.thebalance.com/ – ফিনান্সিয়াল নিউজ সাইট। টেকাটুকার ( টাকাপয়সা) পরামর্শ দেয়। 😛 মাসিক ভিজিটর ২১ মিলিওন। ইন্টারেস্টিং বিষয় হচ্ছে এই সাইটের ৫৩% ভিজিটর হচ্ছে মহিলা/মেয়ে। ক্যরিয়ার, স্মল বিজনেস নামক কিছু চাইল্ড ব্লগও আছে। গুগল অ্যাডসেন্স মূল মানিটাইজেশন প্রোগ্রাম। 

৫। https://www.investopedia.com/ – ইনভেস্টমেন্ট বিষয়ক ব্লগ। মাসিক ইউনিক ভিজিটর ১১ মিলিওন। এভারেজ ৪০ মিলিওন এরও বেশি ( ডিরেক্ট + ইউনিক + রেফারেল)। মানিটাইজেশন মেথড গুগল অ্যাডসেন্স। 

৬। https://www.tripsavvy.com – ট্রাভেল ব্লগ। মাসিক ভিজিটর ৮ মিলিওন এরও বেশি। ৫৬% এরও বেশি ভিজিটর মহিলা। গুগল অ্যাডসেন্স এবং বিভিন্ন ধরনের ট্রাভেল সিপিএ অফার দিয়ে মানিটাইজ করা এই সাইটটা। 

৭। https://www.mydomaine.com/ – ফুড, ট্রাভেল, হোম ডেকর, পেরেন্টিং এবং স্টাইল – সব মিলিয়ে জগাখিচুরি ব্লগ। আমার মনে হয় ডটড্যাশ এই সাইটটা নিয়ে কি করবে আলটিমেটলি সেটা ঠিকঠাক প্লান করতে পারে নাই। 😛 তারপরও মাসিক ভিজিটর ২.৫ মিলিওন। ৭৬% ভিজিটর হচ্ছেন মহিলা। 

৮। https://www.byrdie.com/ – একটা বিউটি টিপস ব্লগ। স্বভাবতই ৯১% ট্রাফিক হচ্ছেন মহিলা। ৪ মিলিওন এর উপরে মাসিক ইউনিক ভিজিটর। গুগল অ্যাডসেন্স দিয়ে মানিটাইজ করা। তবে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ধরনের কোম্পানির প্রডাক্ট এফিলিয়েট করেছে (আমাজন খুব কম পেয়েছি)। ভিজিটরদের বয়স ৩৫ এবং তার কম বা বেশি। 

৯। https://www.lifewire.com/ – টেক ব্লগ। এই সাইটটি সম্ভবত আমাদের কমিউনিটিতেও অনেক পপুলার। একশন বেইজড টিপস দেয়, সেজন্যে আমারও পারসোনাল ফেভ। মাসিক ভিজিটর ৯ মিলিওন এর উপরে ( ইউনিক)। অ্যামাজন এবং অ্যাডসেন্স দুটোই পাশাপাশি চলে মানিটাইজেশনের জন্যে। ওদের রিভিউ (https://www.lifewire.com/buy-4102771) সেকশন থেকে আরটিকেলগুলো দেখতে পারেন কিভাবে একটা রিভিউ সুন্দর করে রিপ্রেসেন্ট করা যায় সেটা বোঝার জন্যে। 

১০. https://www.huffpost.com/: আরিয়ানা হাফিংটন এর নাম এ এর নাম। এর মাসিক ভিসিটর ১১ কোটি এটি তৈরি করা হয়েছে ২০০৫ সালে। এর মাসিক ইনকাম হচ্ছে ১ কোটি ৪০ লক্ষ USD। ইহা নতুন করে নামকরণ করা হয়েছে হাফপোস্ট। হাফপোস্ট এ আপনি মার্কিন পলিটিক্স, কালচার, সেলেব্রেটি, এডুকেলশনাল নিউস পাবেন। আপনি নতুন সাইট বানালে এই সাইটটি দেখতে পারেন।

১১. https://www.tmz.com/ : এর মাসিক ভিসিটর ৩ কোটি এটি তৈরি করা হয়েছে ২০০৫ সালে। এর মাসিক ইনকাম জানা যায় নাই। এটি স্টাইল ব্লগ সাইট। এটি মূলত সেলেব্রেটি গসিপ সাইট হিসেবে পরিচিত।

১২. https://www.businessinsider.com/ : এর মাসিক ভিসিটর ২.৫০ কোটি এটি তৈরি করা হয়েছে ২০০৯ সালে। এর মাসিক ইনকাম জানা যায় নাই। এটি মূলত বিসনেস নিউস শেয়ার ও এনালাইসিস করে থাকে। বিসনেস এর সকল নিউস এর মাধ্যমে পেয়ে যাবেন। বিসনেস রিলেটেড

১৩. https://mashable.com/ : এর মাসিক ভিসিটর ২.৪০ কোটি এটি তৈরি করা হয়েছে ২০০৫ সালে। এর মাসিক ইনকাম ২০ লক্ষ মাকিন ডলার। এটি পেটি ক্যাশমোর শুরু করেন ধীরে ধীরে আইটি সোশ্যাল সাইট হয়ে যায় ও টেক নিউস সাইট এ পরিনিত হয়। আপনি এটাও ফলো করতে পারেন।

কিছু স্ট্যাটস –  

= এই সাইটগুলোর মধ্যে ৫ টা সাইটই ২০০০ সালের আগে কেনা। 

= প্রত্যেকটা সাইটই একটা নির্দিষ্ট গ্রুপের ভিজিটরকে টার্গেট করে বানানো। 

= প্রত্যেকটা সাইটেরই ৮৬%+ ভিজিটর আসে সার্চ ইঞ্জিন থেকে (অরগানিক)। সোশাল ট্রাফিক আছে কিছু + কিছু ট্রাফিক আসে ইমেল থেকে। 

= সব সাইটেই গুগল অ্যাডসেন্স আছে। পাশাপাশি অ্যামাজন, সিপিএ এবং প্রাইভেট রেফারেল লিঙ্কও আছে মানিটাইজ করার জন্যে। 

= সবগুলো সাইটের সব আর্টিকেলই একদম টপনচ, এক্সপার্ট রাইটেন, লঙ এবং ইন-ড্যাপথ। 

= সব সাইট এবং কন্টেন্ট এবং পেজেসগুলো SEO অপ্টিমাইজড। 

শেষ কথা – 

টাকা কামানোর চিন্তা পরে, কন্টেন্ট আগে। ৫ বছরের একটা লং-টার্ম প্লান করুন। DotDash এই ব্লগিংকে একটা বিশাল বিজনেসে রূপান্তর করেছে। সুতরাং আপনিও এটাকে আপনার বিজনেস হিসেবে চিন্তা করুন, কোন সাইড-ইনকাম হিসেবে না। মনে রাখবেন – Content + SEO + Long Term Actionable Plan = Something like DotDash or Even Better. 

কিভাবে হাই-কোয়ালিটি কন্টেন্ট লিখবেন + কিভাবে প্লান বানাবেন + কিভাবে এসইও করবেন; সবকিছু নিয়ে একদম আপডেটেড অনলাইন কোর্স হচ্ছে – NShamimPRO – ( ফেব্রুয়ারি স্পেশাল অফার রানিং)।

একদম শেষ কথা – একটা পাত্রে অনেকগুলো ডিম রাখবেন না।

মানে হচ্ছে, শুধু গুগল অ্যাডসেন্স এর উপর নির্ভর করে বসে থাকবেন না, পাশাপাশি অ্যামাজন অথবা অডিয়েন্স নেটওয়ার্ক নিয়ে কাজ করুন। আবার যারা শুধু মাত্র আপওয়ার্কে কাজ করছেন, তারা পাশাপাশি ব্লগ বানিয়ে ফেলুন।

আবার যারা ব্লগিং করছেন, তারা টুকটাক ক্লাইয়েন্টের কাজও করতে পারেন যেটার টাকা আপনি আপনার নিস সাইটে পরে ইনভেস্ট করতে পারবেন। মাল্টিপল ট্রাফিক সোর্স এবং মাল্টিপল স্ট্রিম অব ইনকাম খুব জরুরি। 

সবাই ভালো থাকবেন। 

About the author

নাসির উদ্দিন শামীম

নাসির উদ্দিন শামীম এসইও নিয়ে কাজ করছেন ২০১০ থেকে।ইতোমধ্যে, DevsTeam, LateNightBirds, NShamimPRO এবং আরো অনেক ইন্টারনেট বেসড কোম্পানি ফর্ম করেছেন। NShamim.Com ব্লগে ইন্টারনেট মার্কেটিং নিয়ে বাংলা ভিডিও টিউটোরিয়াল দিয়ে হাজারো বাংলা ভাষাভাষীদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেছেন। যারা ভিডিও দেখতে পারছেন না, অথবা পর্যাপ্ত ইন্টারনেট না পাওয়ার কারনে ইউটিউব থেকে ভিডিও ডাউনলোড করতে পারছেন না, তাদের জন্যেই মূলত এখানে বাংলায় লিখছেন। সাথেই থাকুন।

View all posts

4 Comments

Leave a Reply